মাইলস-ফরটি ইয়ার্স অ্যানিভার্সিরি লাইভ’ শিরোনামে কনসার্ট ট্যুরের যাত্রা শুরু হবে আমেরিকা ট্যুর দিয়ে।

0
432

যুক্তরাষ্ট্রে সূচনা বাংলাদেশে সমাপ্তি
বিনোদন রিপোর্ট ০৩:৪৪, ১৮ জুন, ২০১৯

মাইলস

এদেশে যেই ব্যান্ডগুলোর মাধ্যমে ব্যান্ডের গান জনপ্রিয়তা পেয়েছে তাদের মধ্যে অন্যতম নামটি ‘মাইলস’। এই যাত্রার ৪০ বছর পেরিয়েছে ব্যান্ডটি। এখনও পুরোনো গানগুলোর জনপ্রিয়তা রয়েছেন সমান তালে। ৪০ বছর উদযাপন উপলক্ষে দেশে এবং বিদেশে অনেকগুলো কনসার্টের আয়োজন করেছে মাইলস।

‘মাইলস-ফরটি ইয়ার্স অ্যানিভার্সিরি লাইভ’ শিরোনামে কনসার্ট ট্যুরের যাত্রা শুরু হবে আমেরিকা ট্যুর দিয়ে। এরপর বিভিন্ন দেশ ঘুরে এর সমাপ্তি হবে বাংলাদেশে।

গতকাল রাজধানীর ডেইলি স্টার-এর ভবনে প্রেস কনফারেন্সের মাধ্যমে এই তথ্য জানান মাইলস ব্যান্ডের সদস্যরা। নিজেদের ব্যান্ডের বর্তমান অবস্থা এবং ভবিষ্যতের পরিকল্পনাগুলো সাংবাদিকদের জানান ব্যান্ডের সদস্যরা। এই সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন শাফিন আহমেদ, হামিন আহমেদ, মানাম আহমেদ, সৈয়দ জিয়াউর রহমান তূর্য এবং ইকবাল আসিফ জুয়েল। এছাড়াও, উপস্থিত ছিলেন আয়োজক প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং ডিরেক্টর সাব্বির রহমান তানিম।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয় ৪০ বছর উদযাপন উপলক্ষে দেশের বিভাগীয় শহর চট্টগ্রাম, রাজশাহী, সিলেট এবং খুলনায় কনসার্টের আয়োজন হবে। এছাড়াও ঢাকাতেও আয়োজন করা হবে। দেশের বাইরে আমেরিকা, কানাডা, অস্ট্রেলিয়ায় কনসার্ট করা হবে।

৪০ বছরপূর্তি উপলক্ষে অন্যান্য আয়োজনের মধ্যে থাকছে মাইলসের সদস্যদের ব্যবহূত বাদ্যযন্ত্র প্রদর্শনী, বিভিন্ন সময়ের দুর্লভ ছবি প্রদর্শন, মাইলসের বিভিন্ন অর্জন প্রদর্শন, গানের লিরিক এবং তার পেছনের কাহিনি প্রদর্শন। সেই সাথে মাইলসের প্রয়াত সদস্যদের স্মরণে একটি জোন তৈরি করা হবে যেন নতুন প্রজন্মের শ্রোতারা মাইলসের ইতিহাস জানতে পারেন।

ব্যান্ডের ভোকাল শাফিন আহমেদ বলেন, ‘আমাদের এতো বছর ক্যারিয়ারে ভক্তরা আমাদের যেই ভালোবাসা দিয়েছেন তাদের প্রতি আমরা কৃতজ্ঞ। তাদের ভালোবাসার জন্য আজও আমরা গান গেয়ে যাচ্ছি। এই অর্জনকে আমরা গ্র্যান্ডভাবে সেলিব্রেট করবো। শুরুটা হবে বিদেশে ট্যুর দিয়ে যা শেষ হবে বাংলাদেশে এসে। ‘মাইলস-ফরটি ইয়ার্স অ্যানিভার্সিরি লাইভ’ শিরোনামে কনসার্ট ট্যুরের যাত্রা শুরু হবে আমেরিকার নিউ জার্সির ট্যুর দিয়ে। এরপর বিভিন্ন দেশ ঘুরে এর সমাপ্তি হবে বাংলাদেশে। সবার কাছে দোয়া চাই, ভালো একটি প্রোগ্রাম যেনো করতে পারি।’ মানাম আহমেদ এ বিষয়ে বলেন, ‘এই ট্যুরটি আমাদের জন্য দারুণ একটি জার্নি হবে। অন্যরকম একটি অভিজ্ঞতা। এটি মাইলস এবং সবার মাঝে একটি মেলবন্ধন সৃষ্টি করবে।’

Print Friendly, PDF & Email